১৮ এপ্রিল, ২০২৪
৫ বৈশাখ, ১৪৩১

শিল্পী সাদী মোহাম্মদের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

মিরর বিনোদন : কিংবদন্তি রবীন্দ্রসংগীতশিল্পী সাদি মহম্মদ আর নেই। বুধবার (১৩ মার্চ) সন্ধ্যার পর তিনি স্বেচ্ছামৃত্যুর পথ বেছে নেন। শিল্পীর পারিবারিক বন্ধু শামীম আরা নীপা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নীপা গণমাধ্যমে বলেন, ‘গত বছর ৮ জুলাই তার মা জেবুন্নেছা সলিমউল্লাহ ৯৬ বছর বয়মে বার্ধ্যক্যজনিত রোগে মারা গেছেন। মা মারা যাওয়ার পর থেকেই একটা ট্রমার মধ্যে চলে যান তিনি। ঠিক স্বাভাবিক ছিলেন না মানসিকভাবে। মা হারানোর বেদনা সম্ভবত তিনি নিতে পারেননি। এভাবেই চলছিল। অসুস্থ ছিলেন। চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। সম্প্রতি খানিকটা সুস্থ হয়েছিলেন।

‘আজ বুধবার রোজাও রেখেছিলেন। ইফতারও করলেন। এরপরই তিনি নীরবে না ফেরার দেশে পাড়ি জমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে মনে করছি আমরা। এর বেশি আর কিছু আপাতত বলতে পারছি না।’

সাদি মহম্মদের ভাই শিবলী মহম্মদ। তিনিও গণমাধ্যমে ভাইয়ের মৃত্যু সম্পর্কে মুখ খুলেছেন। তিনি জানান,  আজও তানপুরা নিয়ে তার বড় ভাই সংগীত চর্চা করেছেন। সন্ধ্যার পর হঠাৎ দেখেন ঘরের দরজা বন্ধ। তখন দরজা ভেঙে তাঁর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেন।

সাদি মহম্মদ রবীন্দ্রসংগীতের ওপরে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করেন। তিনি একজন কিংবদন্তি শিল্পী ও সুরকার। রবীন্দ্রসংগীতে তার মূল পরিচিতি গড়ে উঠলেও আধুনিক গানেও সমান গুরুত্বপূর্ণ।

অসংখ্য রবীন্দ্রসংগীতের অ্যালবাম প্রকাশ হয়েছে তার কণ্ঠে। সঙ্গে আধুনিক গানও। এ ছাড়া তিনি সাংস্কৃতিক সংগঠন রবিরাগের পরিচালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

২০১২ সালে তাকে আজীবন সম্মাননা পুরস্কার প্রদান করে চ্যানেল আই। ২০১৫ সালে বাংলা একাডেমী থেকে পেয়েছেন রবীন্দ্র পুরস্কার।

১৯৭১ সালে স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি তার বাবা সলিমউল্লাহকে হত্যা করে। তার বাবার নামে ঢাকার মোহাম্মদপুরের সলিমউল্লাহ রোডের নামকরণ করা হয়েছে। সাদি মহম্মদের ভাই শিবলী মহম্মদ বাংলাদেশের একজন কিংবদন্তি নৃত্যশিল্পী।

Scroll to Top