১৮ এপ্রিল, ২০২৪
৫ বৈশাখ, ১৪৩১

বেতন-ভাতা বৃদ্ধির দাবিতে রংপুরে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতি

রংপুর প্রতিনিধি : বেতন-ভাতা বৃদ্ধি, চিকিৎসক সুরক্ষা আইন করা ও চিকিৎসকদের কর্মস্থল নিরাপদের দাবিতে কর্মবিরতি পালন করেছে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসকরা। এতে ভোগান্তিতে পড়েছে রোগীরা।

সোমবার (২৫ মার্চ) দুপুরে হাসপাতালের সামনে মানববন্ধনের মাধ্যমে কর্মবিরতি শুরু করেন তারা।

মানববন্ধন থেকে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা জানান, গত বছর বেতন-ভাতা বৃদ্ধির দাবিতে তারা আন্দোলন শুরু করেন। সেই সময় তৎকালীন স্বাস্থ্যমন্ত্রী বৃদ্ধির আশ্বাস দিলে কর্মবিরতি প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়। কিন্তু অনেক সময় পেরিয়ে গেলেও বৃদ্ধি করা হয়নি। এ সময় বক্তারা তাদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধি করে ৩০ হাজার টাকা করার দাবি জানান।

ইন্টার্ন চিকিৎসক ফারহানা আফরিন নিশো বলেন, একজন দিনমজুর ৮ ঘণ্টা পরিশ্রম করে, সেখানে একজন ইন্টার্ন চিকিৎসক ১৪ থেকে ১৬ ঘণ্টা ডিউটি করেন। তারপরও তারা তাদের ন্যায্য বেতন পান না। এখন ঘরভাড়া নিতে গেলে ১০ থেকে ১২ হাজার টাকা লাগে। সেখানে ইন্টার্ন চিকিৎসকরা বেতন পান ১৫ হাজার টাকা। সেই টাকা দিয়ে কিছুই হয় না। যা বর্তমান সময়ে অপ্রতুল।

ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদ রংপুরের আহ্বায়ক ডা. রানা বলেন, ‘বেতন ভাতা বৃদ্ধি, চিকিৎসক সুরক্ষা আইন পাস ও চিকিৎসকদের কর্মস্থল নিরাপদের দাবিতে কর্মবিরতি শুরু হয়েছে। আমরা আমাদের লিখিত দাবি পরিচালকের মাধ্যমে ঢাকায় পাঠিয়েছি। এখনও পর্যন্ত সমাধান আসেনি। সমাধান না আসা পর্যন্ত এই কর্মবিরতি চলবে।’

এদিকে, ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ডাকা কর্মবিরতিতে বিপাকে পড়েছেন রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগী ও তাদের স্বজনরা। রোগীর স্বজনরা বলেন, ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতির কারণে তাদের চিকিৎসা পেতে সমস্যা হচ্ছে।

এ বিষয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. মোহাম্মদ ইউনুস আলী বলেন, রংপুর বিভাগের এই হাসপাতালে শয্যার বিপরীতে বেশি রোগী ভর্তি আছে। এত রোগী সামাল দিতে হিমশিম খেতে হয় চিকিৎসকদের। ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা থাকলে সামাল দেওয়া সহজ হয়। তাদের কর্মবিরতিতে অন্যান্য চিকিৎসকদের রোস্টার করে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করার জন্য বলা হয়েছে। যাতে করে চিকিৎসায় ব্যাঘাত না ঘটে।

ইন্টার্ন চিকিৎসকদের দাবির বিষয়টি ঢাকায় জানানো হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Scroll to Top