১৭ এপ্রিল, ২০২৪
৪ বৈশাখ, ১৪৩১

ফরিদপুরে বাস-লেগুনা সংঘর্ষে প্রাণ গেল ৪ জনের

ফরিদপুর : ফরিদপুরের ভাঙ্গায় বাস ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে লেগুনার চার যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও সাতজন। এদের মধ্যে ৬ জনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) সন্ধ্যা ৭টার দিকে উপজেলার মনসুরাবাদে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের খাড়াকান্দি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- ভাঙ্গা উপজেলার আলগি ইউনিয়নের আড়ুয়াকান্দি গ্রামের মেহেদী মাতুব্বর (২৫), আলগী ইউনিয়নের নওয়াকান্দা গ্রামের হাফিজুল ইসলাম (৪০), ফরিদপুরের মধাখালী উপজেলার সিরাজুল ইসলাম (৩৫) ও নগরকান্দার পুড়াপাড়া গ্রামের লিটন মন্ডল (৩৮)।

আহত সাতজনকে ভাঙ্গা  উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ছয়জনকে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থনান্তর করেন। এরা হলেন- হাসিনা বেগম (৬৫), রানী পাল (৬০), মেহেদী হাসান (১৪), মো. জাহিদ হোসেন (৪৫), আমিরণ বেগম (৬০) ও  রামপাল (৩০)। আহত খালিদ সাইফুল্লাকে (১০) ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

ভাঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ভাঙ্গা থেকে সবুজ বাংলা নামে একটি লেগুনা যাত্রী নিয়ে গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুরের দিকে যাচ্ছিল। ভাঙ্গা পৌরসভার খারাকান্দি নামক স্থানে আসলে ঢাকা থেকে খুলনাগামী সোহাগ পরিবহনের একটি বাস লেগুনাটিকে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই চারজন যাত্রী নিহত হন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুর্ঘটনার পর ওই মহাসড়কে ৪০ মিনিট যান চলাচল বন্ধ ছিল। পরে রাত ৮টার দিকে পুলিশ এসে গাড়ি সরিয়ে ফেললে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

ভাঙ্গা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু সাঈদ মো. খায়রুল আনাম এ তথ্য নিশ্চিত করে গণমাধ্যমকে জানান, গোপালগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসা সোহাগ পরিবহনের একটি বাস ঢাকা যাওয়ার পথে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি লেগুনার সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনায় চারজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ৭জন।

Scroll to Top