১৫ এপ্রিল, ২০২৪
২ বৈশাখ, ১৪৩১

নতুন কর্মসূচি দিলো বিএনপি

মিরর ডেস্ক : দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, বিদ্যুৎ-গ্যাস ও জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ৯ মার্চ সারাদেশে লিফলেট বিতরণ ও জনসংযোগ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। নতুন এই কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছেন যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

বুধবার (৬ মার্চ) বিকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন রিজভী।

রিজভী বলেন, ডামি সরকার মানুষের জরুরি সেবা বিদ্যুৎ, গ্যাস ও জ্বালানি এবং সুপেয় পানির সংকটকে আরও ঘনীভূত করেছে। এগুলো আজ সাধারণ মানুষের ধরাছোঁয়ার বাইরে চলে গেছে। অর্থনীতি, ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগে চরম নৈরাজ্য রাজনৈতিক প্রতিহিংসা পূরণে চরম নির্যাতন, লুটপাট করা অর্থবিত্ত, আইনশৃঙ্খলার নামে মানুষের স্বাধীনতা হরণ, অত্যাচার, চক্রান্ত, খুন ও সন্ত্রাস এদের কলঙ্কের তীব্রতা এতটা বেশি যে, কোনভাবে ছাইচাপা আগুনের মতো লুকাতে পারছে না।

তিনি আরও বলেন, ক্ষমতায় আসার পর আওয়ামী লীগ সরকার ১ কোটি ৪০ লাখ টাকা ব্যয় করে লন্ডন ও সিঙ্গাপুরে রোড-শো করেছিল জ্বালানি খাতে বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার জন্য। কিন্তু এ খাতে তারা বিদেশি বিনিয়োগ আনতে পারেনি। এরা বিদ্যুৎ খাতকে লোপাট করে আইনের হাত থেকে রেহাই পেতে ইনডেমনিটি আইন তৈরি করেছে। গত ১৪ বছরে বিদ্যুতের দাম বেড়েছে ১৩০ শতাংশ। ১৩ বার বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হয়েছে।

বিএনপির এই সিনিয়র নেতা বলেন, চিনির দামও বেড়েছে। শুল্ক কমানোর ঘোষণার পরদিন থেকে দামতো কমেনি উল্টো বেড়েছে। খেজুরের দাম বেড়েছে অস্বাভাবিক গতিতে। ফলে মানুষ আর খেজুর কিনেতে পারছে না। প্রতি কেজিতে খেজুরের দাম ৫০০-৭০০ টাকা বেড়েছে। এটা অস্বাভাবিক, দাম এত বাড়ে কী করে? সিন্ডিকেটের দৌরাত্ম্য আছে বলেই এরকম পরিস্থিতি হয়েছে- এটা বলার অপেক্ষা রাখে না, এটাই স্বাভাবিক।

রিজভী বলেন, শিল্পমন্ত্রী বলেছেন, বরই দিয়ে ইফতার করুন, আঙ্গুর-খেজুর লাগবে কেন? এ ধরনের বক্তব্য ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের প্রতি এক ধরনের নিষ্ঠুর রসিকতা। খেজুর দিয়ে ইফতার যেমন বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা আছে, তেমনি মহত অনুভূতিও রয়েছে। আমাদের প্রিয় নবী মোহাম্মদ (সা.) খেজুর দিয়ে ইফতার করতেন। তার এই ধর্মীয় অনুভূতি রোজার মাসে অনুপ্রাণিত করে। এটাকে নিয়ে আওয়ামী লীগের মন্ত্রীরা তামাশা করছেন, উপহাস করছেন!

Scroll to Top