১৪ এপ্রিল, ২০২৪
১ বৈশাখ, ১৪৩১

টিপ সরিয়ে পরছেন তারকারা, নেপথ্যে কী

মিরর বিনোদন : ক’দিন ধরে কপালের টিপটাকে সরিয়ে এদিক-ওদিক করে পরছেন তারকারা। বাস্তবে না হলেও, সেটি প্রকাশ পাচ্ছে সোশ্যাল হ্যান্ডেলে। অনেকে আবার সেটি প্রকাশের জন্য বেছে নিলেন ফটোশপ প্রযুক্তিও। এমন অদ্ভুত টিপের মুখছবি সোশ্যাল হ্যান্ডেলে প্রকাশ করছেন দেশের শীর্ষ নারী তারকারা। তাদের দেখে অন্য নারীরাও তাল মেলাচ্ছেন। সঙ্গে হ্যাশট্যাগ জুড়ে দিচ্ছেন #OddDotSelfie।

হঠাৎ কেন এই হ্যাশট্যাগ সেলফি! এটা কি তবে বেইলি রোডে আগুনে পুড়ে যাওয়া মানুষগুলোর প্রতি সমবেদনা প্রকাশ নাকি জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে প্রতীকী প্রতিবাদ? না, একটিও নয়। জানা গেছে, সোশ্যাল হ্যান্ডেলে এই ইভেন্ট শুরু হয়েছে নারী দিবসকে (৮ মার্চ) সামনে রেখে নারী নির্যাতন প্রতিরোধে জনমত গড়ে তোলার লক্ষ্যে।

মূলত ৩ মার্চ এই প্রতিবাদে সামিল হওয়ার জন্য ফেসবুকে নিজের দেয়ালে একটি পোস্ট করে আহ্বান জানান নাট্যজন সারা যাকের। যেখানে তিনি নিজেও একটি ‘অড ডট সেলফি’ প্রকাশ করেন। সঙ্গে ছবিটি তোলার একটি টিউটোরিয়ালও দেন। এর আগে-পরে বিষয়টি নিয়ে পোস্ট দিয়েছেন জয়া আহসান, জাকিয়া বারী মম, নুসরাত ইমরোজ তিশা, মাসুমা রহমান নাবিলা, মিথিলা, সারাহ আলমের মতো অভিনয়শিল্পীরা।

তারা সকলেই নিজ নিজ ফেসবুক হ্যান্ডেলে একটি সেলফি পোস্ট করেছেন। যেটাতে লক্ষণীয় বিষয় হলো, তাদের সকলের কপালের টিপ নির্ধারিত জায়গা থেকে কিছুটা সরানো। এই অসামঞ্জস্যকেই মূলত প্রতিবাদের ভাষা মনে করছেন তারা। যা মূলত শুরু হয়েছে ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে।

ক্যাম্পেইনটির বার্তা এরকম, “বাংলাদেশে প্রতি তিনজনে একজন নারী ঘরে-বাইরে নানাভাবে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। কিন্তু সেই অনুপাতে এটা নিয়ে তেমন কোনও প্রতিবাদ হয় না। কারণ আমাদের সমাজে নারীদের শেখানোই হয় নীরবে সহ্য করতে। কিন্তু আমরা চাই, এই ট্যাবু ভেঙে আওয়াজ তুলুক প্রতিটি নারী। কারণ চুপ না থেকে কথা বললেই কেবল সম্ভব এইসব সহিংসতা বন্ধ করা। আর তাই, নারী নির্যাতনের প্রতিবাদ হিসেবে ‘অড ডট সেলফি’; যেখানে প্রতিবাদের ভাষা হিসেবে বেছে নেয়া হয়েছে নারীর সাজের চিরায়ত সঙ্গী কপালের টিপ।”

এই বার্তায় সংহতি প্রকাশ করে অভিনেত্রী ছাড়াও দেশের সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার থেকে শুরু করে সাধারণ নারীরাও অংশ নিচ্ছেন এ প্রতিবাদে।

এই ক্যাম্পেইনের পেছনে রয়েছে অভিনেত্রী সারা যাকের তথা বিজ্ঞাপনী সংস্থা এশিয়াটিক সংশ্লিষ্ট দুই প্রতিষ্ঠান রেডিও স্বাধীন ও মঙ্গলদ্বীপ ফাউন্ডেশন। রেডিও স্বাধীনের আরজে অহনা বিষয়টি নিয়ে বললেন, ‘অনেকেই প্রশ্ন করছেন, একটি টিপ কীভাবে প্রতিবাদের ভাষা হতে পারে? আমার মনে হয়, এটা একটা ঐক্য। এর মাধ্যমে আমরা সহিংসতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াচ্ছি। একই বিষয় নিয়ে সকল নারী কথা বলছি। সেজন্যই এই ক্যাম্পেইন শুরু করেছি আমরা।’

অড সেলফি দিয়ে দুই বাংলাজয়ী অভিনেত্রী জয়া আহসান বলেছেন, ‘কপালে টিপ দিয়ে আমরা নারীরা নিজেদের শোভন করে তুলি। সোশ্যাল মিডিয়ায় আমাদের টিপ পরা হাসি হাসি মুখের ছবিতে লাইক পড়তে থাকে। কিন্তু ঘরের ভেতরেও কি আমাদের সবার ছবিটা এই রকম? দেশে প্রতি তিনজন নারীর একজন সহিংসতার শিকার হচ্ছে। রক্তে মেখে যাচ্ছে তাদের শোভন সৌন্দর্য। স্খলিত হয়ে পড়ছে টিপ। মানুষ হিসেবে তাদের মর্যাদা খসে পড়ছে। আসুন, আমরা নারী নির্যাতনের প্রতিবাদ করি।’

অভিনেত্রী জাকিয়া বারী মমর বার্তা এরকম, ‘প্রতি বছর নারীর প্রতি সহিংসতা যেন বেড়েই চলেছে! এখন আর নীরব থাকার সময় নেই। এখন প্রতিবাদ জানানোর সময়।’

উল্লেখ্য, ১৯৭৫ সালে জাতিসংঘ ৮ মার্চকে আন্তর্জাতিক নারী দিবস হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। যদিও দিবসটির ইতিহাস আরও পুরনো এবং বিস্তৃত।

Scroll to Top