১৮ এপ্রিল, ২০২৪
৫ বৈশাখ, ১৪৩১

মারুফ কীর্তির পরও ব্যাটিং ব্যর্থতায় হার বাংলার যুবাদের

মিরর স্পোর্টস : মারুফ মৃধার যুব ক্যারিয়ারের সেরা বোলিং নৈপুণ্য মলীন হয়ে গেল দলের ব্যাটিং ব্যর্থতায়। দক্ষিণ আফ্রিকার ব্লুমফন্টেইনে নিজেদের যুব বিশ্বকাপ অভিযাত্রা শুরুর ম্যাচে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারতের কাছে বাংলার যুবারা হেরেছে ৮৪ রানের বড় ব্যবধানে।

মাসখানেক আগে যুব এশিয়া কাপের সেমিফাইনালে ভারতবধের দিনে চার উইকেট শিকার করেছিলেন মারুফ। আজ এ বাঁহাতি পেসার করেছেন ক্যারিয়ারসেরা বোলিং। নিয়েছেন ৪৩ রানে ৫ উইকেট। তাতে ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৫১ রান সংগ্রহ করে ভারত। ভারতের হয়ে সর্বোচ্চ ৭৬ রান করেন ওপেনার আদর্শ সিং। তাদের অধিনায়ক উদয় সাহারন করেন ৬৪ রান। ৩১ রানে দুই উইকেট হারানোর পর এ দুজনের ১১৬ রানের জুটিতে ম্যাচে ফেরে ভারত। আদর্শকে থামান চৌধুরী রিজওয়ান। আর উদয়ের উইকেট নেন টাইগার অধিনায়ক মাহফুজুর রাব্বী। বাকি পাঁচটি উইকেট একাই শিকার করেন মারুফ।

২৫২ রানের লক্ষ্যে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় বাংলাদেশ। ৩৮ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়ার ১২ রানের মাথায় একে একে সাজঘরের পথ ধরেন চার টপ অর্ডার ব্যাটার। শুরুটা হয় ১৪ রানে ফেরা জিশান আলমকে দিয়ে। যুব এশিয়া কাপের সেরা ব্যাটার শিবলীও ফেরেন ১৪ রান করে। রিজওয়ান, আহরাররা ফেরেন আরও দ্রুত।

এরপর ক্রিজে আসা শিহাব জেমসকে নিয়ে জুটি গড়েন আরিফুল ইসলাম। তাদের ৭৭ রানের জুটিই এ ম্যাচে যুবাদের ব্যাটিং নিয়ে স্বান্তনার স্বল্প পুঁজি। সেটি ভাঙে ৪১ রানে আরিফের বিদায়ে। জেমস ফেরেন ফিফটি করে ৫৪ রানে। অধিনায়ক রাব্বীর ব্যাটও হাসেনি এদিন। বাকিরা শুধু ব্যবধানটাই কমান। ২৫ বল বাকি থাকতেই ১৬৭ রানেই থেমে যায় বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ইনিংস। ভারতের সৌমি পান্ডে ৩টি ও মুশির খান ২টি উইকেট নেন। পচেফস্ট্রুমে ভারতকে হারিয়ে যুব বিশ্বকাপ জয়ের স্মৃতি ফেরানো হলো ব্লুমফন্টেইনে। হার দিয়েই আসর শুরু করলো বাংলার যুবারা।

Scroll to Top