১৪ এপ্রিল, ২০২৪
১ বৈশাখ, ১৪৩১

ক্রীড়াঙ্গনের মানুষের হাতে ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব

মিরর স্পোর্টস : ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্বে থাকা জাহিদ আহসান রাসেলকে সরিয়ে মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনকে। শুধু তাই নয়, পাপনকে পূর্ণ মন্ত্রী করা হয়েছে। ১৯৯১ সাল থেকে গতকাল পর্যন্ত প্রতিমন্ত্রীরা ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ে দায়িত্ব পালন করেছেন। গতকাল বঙ্গভবনে শপথ গ্রহণের পর দপ্তর বণ্টন করা হয়। গুঞ্জন ছিল পাপন পরিকল্পনা মন্ত্রী হতে পারেন, ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী হতে পারেন। গুঞ্জনটা মিলেছে, ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন তিনি। পূর্ণমন্ত্রী হয়েছেন পাপন।

অবশেষে ক্রীড়াঙ্গনের মানুষের হাতে ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব। পাপন ২০১৩ সাল থেকে বিসিবির সভাপতি। তারও আগ থেকে আবাহনীর সঙ্গে জড়িত। খেলার মানুষ। ক্রীড়াঙ্গনের মানুষ। ১৯৯১ সালে জাতীয় নির্বাচনে কিছু দিন মির্জা আব্বাস ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। আব্বাসের পর বিএনপি নেতা সাদেক হোসেন খোকাকে ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়। খোকা আগে থেকেই খেলাধুলার অঙ্গনের মানুষ ছিলেন। খোকার পর থেকে যারাই এসেছেন তারা রাজনৈতিক অঙ্গনের হলেও ক্রীড়াঙ্গনের ছিলেন না।

আহাদ আলী সরকার, বীরেন সিকদার, ফজলুর রহমান পটল, আওয়ামী লীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের অনেক দিন ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ে দায়িত্ব পালন করেন। কিছু সময়ের জন্য ছিলেন মুজিবুল হক চুন্নু। জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক আরিফ খান ক্রীড়া উপমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন। ক্রীড়াঙ্গনের মানুষদের কৌতূহল ছিল সরকারের প্রতি ক্রীড়াঙ্গনের কেউ ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাচ্ছেন না। অবশেষে সেই আক্ষেপ পূরণ করে  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দিলেন ক্রীড়াঙ্গনের একজন মানুষকে।
Scroll to Top