১৫ এপ্রিল, ২০২৪
২ বৈশাখ, ১৪৩১

ধর্ষণের মামলায় ট্রাম্পের জরিমানা ৮৩ মিলিয়ন ডলার

মিরর ডেস্ক : রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থীর দৌড়ে একের পর এক বাধা টপকে এগিয়ে চলেছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে এবার তা পা পিছলে গেল যুক্তরাষ্ট্রের একটি ফেডারেল আদালতে। ধর্ষণ ও মানহানির মামলায় সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ৮৩ দশমিক ৩ মিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের একটি ফেডারেল আদালত। স্থানীয় সময় শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) নিউইয়র্কের ম্যানহাটনের ফেডারেল আদালতের নয় সদস্যের প্যানেল ট্রাম্পকে এই নির্দেশ দেন। ট্রাম্পকে ভুক্তভোগী নারী এলিজাবেথ জেন ক্যারলকে ক্ষতিপূরণের এই অর্থ দিতে হবে।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি বলছে, আদালত জানিয়েছে ভুক্তভোগী এলিজাবেথ জেন ক্যারলকে শাস্তিমূলক ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৬৫ মিলিয়ন ডলার আর সুনাম ক্ষুন্ন হওয়ায় ১১ মিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ পাবেন। এছাড়া মানসিক ক্ষতিসাধনের জন্য ক্যারলকে ৭ দশমিক ৩ মিলিয়ন ডলার দিতে হবে ট্রাম্পকে।

মূলত এলিজাবেথ জেন ক্যারল সাবেক সাংবাদিক ও কলাম লেখক। তার বয়স ৮০ বছর। গত বছর ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তুলে তিনি ম্যানহাটনের ফেডারেল আদালতে মামলা করেন। ওই সময় আদালতে সাক্ষ্য দিয়ে ক্যারল বলেছিলেন, তিনি তার জীবন ফিরে চান। বছরের পর বছর ধরে সেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

ক্যারলের অভিযোগ, ১৯৯৬ সালে ম্যানহাটনের একটি ডিপার্টমেন্ট স্টোরের ড্রেসিংরুমে ট্রাম্প তাকে ধর্ষণ করেছিলেন। ওই সময় তিনি একজন বন্ধুর জন্য উপহার কিনতে সেখানে গিয়েছিলেন। পূর্বপরিচিত ট্রাম্প তাকে উপহার পছন্দ করে দিতে সহায়তা করছিলেন। এর পাশাপাশি ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মানহানির অভিযোগও করেন ক্যারল। তবে ক্যারলের এসব অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছিলেন ট্রাম্প। তার দাবি, নিজের প্রচারণার জন্য এমন ‘কল্পকাহিনি’ বলছেন ক্যারল।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই রাজ্যের ডেমোক্রেটরা দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ক্যাপিটাল হিলে দাঙ্গায় উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ এনে তাকে ব্যালট থেকে নিষিদ্ধ করতে একটি বিল উত্থাপন করেছে। হাওয়াই রাজ্যে প্রচলিত বিধির ১৪ তম সংশোধনীর বিদ্রোহ ধারার উপর নির্ভর করে প্রেসিডেন্ট প্রার্থীদের নিষিদ্ধ করার আইন বিবেচনা করে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন ডেমোক্রেটরা। ফক্স নিউজ

হাওয়াই রাজ্যের ডেমোক্রেট সিনেটর কার্ল রোডস হনলুলুর প্রতিনিধিত্ব করেন। তিনি ট্রাম্পের বিরুদ্ধে এ বিল উত্থাপন করেছেন। এর আগেও তিনি ট্রাম্প ও রিপাবলিকানদের সমালোচনা করেছেন।

Scroll to Top