১৮ এপ্রিল, ২০২৪
৫ বৈশাখ, ১৪৩১

আরো ঘাঁটি ও সৈন্য হারালো মিয়ানমার জান্তা

মিয়ানমারের জান্তা বাহিনী গত চার দিনে আরো ঘাঁটি এবং সৈন্য হারিয়েছে। কাচিন, রাখাইন এবং মোন রাজ্য এবং সাগাইং এবং বাগো অঞ্চলে এই ঘাঁটিগুলো হারিয়েছে তারা। পিপলস ডিফেন্স ফোর্সেস (পিডিএফ) এবং জাতিগত সশস্ত্র সংগঠন (ইএও) সারা দেশে আক্রমণ চালিয়ে যাওয়ায় একের পর এক ঘাঁটি হারাচ্ছে তারা। খবর মিয়ানমারের গণমাধ্যম ইরাওয়াদ্দির।

আরাকান আর্মি জানিয়েছে, কাচিন রাজ্যের মান্দালে-মিটকিনা রোডের একটি কৌশলগত জান্তা ঘাঁটি সোমবার তিন দিনের লড়াইয়ের পর বিদ্রোহী সেনারা দখল করে নিয়েছে। কাচিন ইন্ডিপেন্ডেন্স আর্মি এবং কাচিন রিজিয়ন পিপলস ডিফেন্স ফোর্সের সমন্বিত আক্রমণে মানসি টাউনশিপের শিখাঙ্গি গ্রামের ঘাঁটিটি দখল করেছে তারা।

বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলো জানিয়েছে, জান্তার বিমান বাহিনী ঘাঁটি রক্ষার জন্য ৬০টিরও বেশি বিমান হামলা চালায়। হামলায় ছয়জন বেসামরিক লোক নিহত এবং আরও ১৫ জন আহত হয়েছে।

আরাকান আর্মি জানায়, সংঘর্ষ চলাকালে একটি জান্তা ফাইটার জেট তিনবার শিখাঙ্গি গ্রাম ও এর আশেপাশে বোমা ফেলে। তারা প্রচুর অস্ত্র ও গোলাবারুদ বাজেয়াপ্ত করে। ১০ জন জান্তা সামরিক বাহিনীর মৃতদেহ খুঁজে পেয়েছে। জঙ্গল এবং কাছাকাছি এলাকায় পালিয়ে যাওয়া জান্তা সৈন্যদের খুঁজে বের করছে তারা।

এছাড়া বিদ্রোহীরা মোন রাজ্যের সামরিক কমান্ড সদর দপ্তরে বোমা হামলা, সাগাইং অঞ্চলের মনিওয়া টাউনশিপের মনিওয়া-চাং-ইউ রোডের একটি পেট্রোলিয়াম স্টেশনে স্বয়ংক্রিয় বিমান হামলা, বাগো অঞ্চলে সিটাং নদীর উপর ‘কিউই ওয়াইন পিন’ ব্রিজ ক্রসিংয়ে ড্রোন হামলা চালায়।
Scroll to Top