২৩ মে, ২০২৪
৯ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১
Mirror Times BD

সিনেমা নির্মাণে দিতিকন্যা, নির্বাহী প্রযোজক বাঁধন

মিরর বিনোদন : নন্দিত অভিনেত্রী পারভীন সুলতানা দিতি ও অভিনেতা সোহেল চৌধুরীর কন্যা লামিয়া চৌধুরী। ফিল্মি ভাষায় বললে, স্টারকিড। ছোটবেলা থেকেই সিনেমার প্রতি আগ্রহ ছিল। তবে পড়াশোনার জন্য এত দিন রূপালি জগতে সেভাবে সরব থাকেননি। যদিও পড়াশোনা করেছেন ফিল্ম প্রডাকশনের ওপরই। সেই প্রস্তুতি নিয়েই এবার লামিয়া জানালেন, সিনেমায় আসছেন তিনি। তবে অভিনেত্রী নয়, পরিচালক হিসেবে। ছবির নাম ‘মেয়েদের গল্প’।

এই তো গেলো একটা চমকপ্রদ খবর। তবে শেষ এখানেই নয়। এই ছবির নির্বাহী প্রযোজক হিসেবে থাকছেন অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন। বুধবার (৮ মে) সন্ধ্যায় সেই তথ্য নিশ্চিত করেছেন বাঁধন নিজেই।

বললেন, ‘আমি আসলে অনেক দিন ধরেই ভাবছিলাম, যে গল্পটা আমি বলতে চাই, দেখতে চাই, সেটা যদি বলতে পারতাম! যেহেতু আমি লেখক নই, আবার পরিচালনাকে আমার কাছে খুব কঠিন কাজ মনে হয়। তো একবার দিতি আপুর কবর জিয়ারত করতে যাওয়ার সময় লামিয়ার সঙ্গে গাড়িতে বসেই আলাপ হয়। ওর গল্পটা আমাকে জানায়। ওই মুহূর্তেই আমি ওকে বলেছিলাম, কাজটি করতে চাই। কারণ আমি একজন নারী লেখক-নির্মাতাকেই খুঁজছিলাম মনে মনে।’

এরকম গল্প-নির্মাতার জন্যই অপেক্ষায় ছিলেন বাঁধন। তার ভাষ্য, ‘মিডিয়াতে নারীদের দৃষ্টিকোণ থেকে গল্প বলার জায়গাটা খুব কম। এ কারণেই আমি ভেবে রেখেছি, যখন নিজের প্রযোজনায় কিছু করবো, সেটা যেন নারীদের দৃষ্টিকোণ থেকে দেখা গল্প হয়। এই গল্পটা খুবই ইন্টারেস্টিং। আমি শুনেই মুগ্ধ হয়ে গিয়েছিলাম। লামিয়াও খুশি মনে রাজি হয়ে যায়।’

অন্যদিকে লামিয়া জানালেন, বছর দশেক আগে এই ছবিটির কথা তিনি তার মা দিতিকে বলেছিলেন। তিনি ছবিটি প্রযোজনা এবং এতে অভিনয় করবেন বলেও কথা দিয়েছিলেন। কিন্তু ২০১৬ সালে দিতির মৃত্যুর কারণে সব থমকে যায়।

লামিয়া বলেন, ‘আমি আসলে পুরোপুরি হাল ছেড়ে দিয়েছিলাম। কারণ আমাদের ইন্ডাস্ট্রির পরিস্থিতিও খুব বাজে। কিন্তু বাঁধন আপু আমাকে সাহস দিয়েছেন, আত্মবিশ্বাস জুগিয়েছেন। আমরা দুজন মিলে ছবিটি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এরই মধ্যে আমার চিত্রনাট্য লেখার কাজ শেষ হয়ে গেছে।’

‘মেয়েদের গল্প-তে কে অভিনয় করবেন? সে বিষয়টি অবশ্য লামিয়া কিংবা বাঁধন কেউই প্রকাশ করেননি। তবে বাঁধন জানান, ইতোমধ্যে ছবির প্রযোজকও প্রায় চূড়ান্ত হয়ে গেছে। সব কিছু ঠিক থাকলে চলতি বছরই ছবিটির কাজ সেরে ফেলতে চান তারা। নির্মাণ শেষে এটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে। এরপর কোনও ওটিটি প্ল্যাটফর্মে আসতে পারে।

⠀শেয়ার করুন

⠀আরও দেখুন

Scroll to Top