২৩ মে, ২০২৪
৯ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১
Mirror Times BD

১৪৬ বছরের ইতিহাসে মার্করামই ‘প্রথম’

মিরর স্পোর্টস : কেপটাউনে গড়িয়েছিল দক্ষিণ আফ্রিকা ও ভারতের মধ্যকার দুই ম্যাচ সিরিজের শেষ টেস্ট। তবে ম্যাচটি মাত্র দেড় দিনেই শেষ হয়ে গেছে। এর মধ্যে দিয়ে ৯২ বছরের রেকর্ড ভেঙেছে বক্সিং ডে টেস্টটি।

এদিন স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার আর কোনো ব্যাটার ১২ রানের বেশি করতে পারেননি। ব্যাটিংয়ের জন্য ভীষণ দুরূহ এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে যান এইডেন মার্করাম। ভারতের বিপক্ষে প্রোটিয়া ব্যাটার তুলে নেন ক্যারিয়ারের সপ্তম টেস্ট সেঞ্চুরি। এতে তৈরি হয়েছে নতুন একটি রেকর্ড। টেস্ট ক্রিকেটের ১৪৬ বছরের ইতিহাসে আগে দেখা যায়নি এমন কীর্তি।

বৃহস্পতিবার কেপটাউন টেস্টের ফয়সালা হয়েছে দুই দিনেরও কম সময়ে। ফল হিসেবে এটি সর্বকালের সংক্ষিপ্ততম টেস্ট। চার ইনিংস মিলিয়ে খেলা হয়েছে স্রেফ ১০৭ ওভার। সেখানে ভারত ৭ উইকেটে জিতে প্রোটিয়াদের মাটিতে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ড্র করেছে। এই ম্যাচেই ইতিহাসের পাতায় জায়গা করে নিয়েছেন মার্করাম।

ভারতের পেসার জাসপ্রিত বুমরাহ ৬১ রানে ৬ উইকেট নেয়ায় দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় ইনিংসে অলআউট হয়েছে ১৭৬ রানে। মার্করাম ছাড়া দুই অঙ্কে যান কেবল তিনজন। অধিনায়ক ডিন এলগার ১২ এবং ডেভিড বেডিংহ্যাম ও মার্কো জানসেন সমান ১১ রান করেন।

দল অলআউট হয়েছে এবং ১১ জনের ১০ জনই ১৩ রানের নিচে সাজঘরে ফিরেছেন— এমন টেস্ট ইনিংসে সেঞ্চুরি হাঁকানো ইতিহাসের একমাত্র ব্যাটার মার্করাম। অর্থাৎ দলের এমন ইনিংসে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত সংগ্রহের মালিক এখন তিনি। এর মধ্য দিয়ে মার্করাম ভেঙে দিয়েছেন প্রোটিয়াদেরই সাবেক ক্রিকেটার গর্ডন হোয়াইটের কীর্তি।

১৯০৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। পাঁচ ম্যাচ সিরিজের চতুর্থ টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ১৩৮ রানে অলআউট হয়েছিল স্বাগতিকরা। ঐ ইনিংসে হোয়াইটের ব্যক্তিগত অবদান ছিল ৭৩ রান। বাকি ১০ ব্যাটারের সবাই ১২ রানের মধ্যে আটকে গিয়েছিলেন।

চমকপ্রদ ব্যাপার হলো, সেই টেস্টও হয়েছিল কেপটাউনের নিউল্যান্ডস স্টেডিয়ামে।

⠀শেয়ার করুন

⠀আরও দেখুন

Scroll to Top