২৯ মে, ২০২৪
১৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১
Mirror Times BD

ডলার সঙ্কটের কথা বলে খোলা বাজারে বেশি দামে বিক্রি

অর্থনীতি রিপোর্ট : বাংলাদেশ ব্যাংক আনুষ্ঠানিকভাবে ডলারের দাম ১১৭ টাকা নির্ধারণ করে দেওয়ার এক দিন পর বৃহস্পতিবার (৯ মে) খোলা বাজারে দাম বেড়েছে। কোনো কোনো জায়গায় ডলার ১২৫ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে। তবে, কেউ কেউ খোলা বাজারে ডলার বিক্রি করেননি, তারা পরিস্থিতি পর্যালোচনা করছেন।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর দিলকুশা, পল্টন, মতিঝিল এলাকায় মানি এক্সচেঞ্জ হাউজগুলোর কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা গেছে।

মানি এক্সচেঞ্জগুলোর কর্মকর্তারা বলেছেন, কেন্দ্রীয় ব্যাংক ডলারের দাম ঠিক করে দিলেও আমাদের অ্যাসোসিয়েশন থেকে কোনো নির্দেশনা আসেনি। তাই, আমরা আজকে অনেকেই ডলার বেচাকেনা করিনি। তবে, কেউ কেউ খুব সতর্কতার সঙ্গে দাম বাড়িয়ে বিক্রি করছেন। কেউ কেউ ডলার ১২৫ টাকা দরেও ডলার বিক্রি করেছেন।

পুরানা পল্টনের চকবাজার মানি এক্সচেঞ্জের কর্মকর্তা মুস্তাফিজুর রহমান বলেছেন, গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত ডলার বিক্রি করেছি। আমরা আজ ডলার কেনাবেচা করিনি। কারণ, আমারদের কোনো নির্দেশনা দেওয়া হয়নি যে, কত দামে ডলার বেচাকেনা করব।

আরও কয়েকটি মানি এক্সচেঞ্জে যোগাযোগ করলে তারা জানান, তাদের কাছে কোনো ডলার নেই। তাই, দামও বলতে পারছেন না।

তবে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মানি এক্সচেঞ্জের এক কর্মকর্তা বলেন, ডলার থাকলেও অনেকে বিক্রি করছেন না। আমরাও কিছু বিক্রি করেছি। তবে, বুঝে-শুনে বিক্রি করেছি। আমরা আজকে ১২৫ টাকা দরে ডলার বিক্রি করেছি।

নিউট্রল মানিএক্সচেঞ্জ হাউজে একাধিক ডলার ব্যবসায়ীকে আড্ডা দিতে দেখা গেছে। নাম না প্রকাশের শর্তে একজন বলেন, প্রতি ডলার ১২১ টাকা ৫০ পয়সায় বিক্রি করা হচ্ছে। গতকাল পর্যন্ত ১১৯ টাকা ৫০ পয়সা দরে  বিক্রি করেছি। সরকার ১১০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১১৭ টাকা করেছে, আমরা প্রতি ডলার মাত্র ২ টাকা বাড়িয়ে ১২১ টাকা ৫০ পয়সায় বিক্রি করছি।

মেক্সিকো মানি এক্সচেঞ্জের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আমাদের কাছে আপাতত ডলার নেই। ডলার হাতে এলে কেনা দাম অনুযায়ী বিক্রি করব।

উল্লেখ্য, বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংক ডলারের দাম ৭ টাকা বাড়িয়ে নির্ধারণ করে ১১৭ টাকা। এর পরেই খোলা বাজারে ডলার সঙ্কটের অজুহাত তুলে বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে।

⠀শেয়ার করুন

⠀আরও দেখুন

Scroll to Top